নোরা ফাতেহির অনুষ্ঠান বন্ধের এখতিয়ার এনবিআরের নেই: তথ্যমন্ত্রী

প্রকাশিত: ৬:৪৪ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ১৬, ২০২২
নিউজটি শেয়ার করুন

ভারতীয় নৃত্যশিল্পী ও অভিনেত্রী নোরা ফাতেহিকে নিয়ে অনুষ্ঠান বন্ধের এখতিয়ার জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) নেই বলে জানিয়েছেন তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ। সচিবালয়ে বুধবার (১৬ নভেম্বর) সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা জানান।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘নোরা ফাতেহিকে নিয়ে বাংলাদেশে অনুষ্ঠান করার জন্য সংশ্লিষ্টদের অনুমতি দেয়া হয়েছে। জাতীয় রাজস্ব বোর্ড ট্যাক্স বা ভ্যাট আদায়ের বিষয়ে পদক্ষেপ নিতে পারলেও অনুষ্ঠান বন্ধ করার কোনো এখতিয়ার রাখে না।’

তিনি বলেন, ‘নোরা ফাতেহি একজন স্বনামধন্য অভিনেত্রী। কাতারে অনুষ্ঠিত আগামী বিশ্বকাপে আইটেম সংয়ে (গান) তিনিই পারফর্ম করবেন, যেটি অনান্য বিশ্বকাপেও হয়েছে; যেমন শাকিরা করেছে, আরও বেশ কয়েকজন বিশ্ববরেণ্য তারকারা করেছে।

‘তাকে একটি প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশে এনে একটি অনুষ্ঠানের মাধ্যমে একটি ডকুমেন্টারি করতে চায়। তো সেটির জন্য আমরা অনুমতি দিয়েছি। এ ক্ষেত্রে ট্যাক্স বা ভ্যাট আদায়—সেগুলোর জন্য এনবিআর অবশ্যই তাদের নোটিশ দিতে পারে, কিন্তু এনবিআর অনুষ্ঠান বন্ধ করার কোনো এখতিয়ার রাখে না।

‘যেখানে সরকার অর্থাৎ মন্ত্রণালয় অনুষ্ঠান করার অনুমতি দিয়েছে, সেখানে অনুষ্ঠান বন্ধ করার এখতিয়ার এনবিআর রাখে না। এনবিআর অবশ্যই ট্যাক্স/ভ্যাট আদায় করার জন্য পদক্ষেপ নিতে পারে। আমরা অনুমতি দিয়েছি।’

অনুষ্ঠানের বিষয়ে মন্ত্রী আরও বলেন, ‘যদি ট্যাক্স/ভ্যাটের বিষয় থাকে, সেটি এনবিআর দেখবে, কিন্তু অনুষ্ঠান বন্ধ করার এখতিয়ার তো কারও নাই। আমরা অনুমতি দিয়েছি। সুতরাং তারা এ অনুমতির বলে অনুষ্ঠান করতে পারবে।’

নোরা ফাতেহিকে নিয়ে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন বিধির লঙ্ঘন বলে জানিয়েছে এনবিআর।

সংস্থাটির মঙ্গলবারের প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, ‘উইমেন্স লিডারশিপ করপোরেশনের আয়োজনে বিদেশি শিল্পী নোরা ফাতেহিকে নিয়ে একটি সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান আয়োজন করা হবে বলে বিভিন্ন সূত্রে জেনেছে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের ভ্যাট উইং।

‘বিদেশি শিল্পী নিয়ে বিনোদনমূলক সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান করতে গেলে সংশ্লিষ্ট ভ্যাট বিভাগীয় দপ্তরের ঘোষণা প্রদান, ব্যাংক গ্যারান্টি জমা ও অনুমতি গ্রহণের বাধ্যবাধকতা রয়েছে, কিন্তু সংশ্লিষ্ট ভ্যাট দপ্তর ও বিভাগীয় দপ্তরে যোগাযোগ করে জানা যায় যে, আয়োজক প্রতিষ্ঠান কর্তৃক এ সংক্রান্ত কোনো ঘোষণা ও ব্যাংক গ্যারান্টি দাখিলসহ অনুমতি গ্রহণ করা হয়নি।’