ইচ্ছের ধারাপাত

প্রকাশিত: ৮:০৪ পূর্বাহ্ণ, নভেম্বর ৬, ২০১৯
নিউজটি শেয়ার করুন

 

শৈশবে আমি হতে চাইতাম, পাখি
ডানা মেলে উড়াল দিয়ে মাকে দেবো ফাঁকি।
হতে চাইতাম, পদ্ম ফুলের পাতা, পুকুর ভরা জল
বাবার অধিক স্নেহ পাবার নানান রকম ছল!

কৈশোরে হতে চাইতাম, ভূবন ডাঙার মাঠ;
বাবুই পাখির বাসা, ধনু গাঙ্গের পারাপারের মাঝি
হারিয়ে যাওয়া নাটাই বিহীন ঘুড়ি
সবিতাদির চপল হাতের নীল রঙ্গা চুড়ি।
হতে চাইতাম নদী,
উজার করে ছুটে চলা অকুল নিরবধি।

যৌবনে আমি হতে চাই,
অত্যাচারীর বুকে বিদ্ধ প্রতিবাদের ছুরি
অভিমূন্যের চক্রভেদি দুঃসাহসী পণ,
সুমহান বীর হযরত আলীর শাণিত তরবারী
আগুন জ্বলা বিজয় শুভক্ষণ।
হতে চাই, শ্যাম বালিকার প্রেম; প্রণয় স্রোতধারা
বুকের ঘাসে গজিয়ে ওঠা গোলাপ ফুলের চারা।
হতে চাই, সাধুসঙ্গের দরদ ভরা গান
নেত্রকোণার চিত্তহরা সারস ভরা বিল;
প্রণয়কাতর এক রমণীর
চোখের পাতায় লুকিয়ে থাকা
সোহাগ মাখা তিল।

বার্ধক্যে কি হতে চাই জানি না।
আমার মতে,
জীবনে বার্ধক্য বলতে কিছু নেই;
যৌবন ফুরালেই মৃত্যু।

 

ইচ্ছের ধারাপাত
কবি:পি সি দ্বীপ
ছয় এগারো উনিশ
সোনারগাঁ নাঃগঞ্জ।